আইওএসের নতুন সংস্করণে যা আছে

আইওএসের নতুন সংস্করণে যা আছে

সম্প্রতি অনলাইনে অনুষ্ঠিত হয়েছে প্রযুক্তিপণ্যের জনপ্রিয় প্রতিষ্ঠান অ্যাপলের বার্ষিক ডেভেলপার সম্মেলন (WWDC)। সেখানে বেশকিছু গুরুত্বপূর্ণ ঘোষণা দিয়েছে অ্যাপল। অ্যাপল ক্যাম্পাসে ধারণকৃত রেকর্ড করা একটি ভিডিওতে আইওএস ১৪ উন্মোচনের ঘোষণা দেন অ্যাপলের সিইও টিম কুক।

সম্মেলনে আইফোনের সর্বশেষ অপারেটিং সিস্টেম আইওএস ১৪ সংস্করণ সম্পর্কে নানা তথ্য জানিয়েছে টেক জায়ান্টটি। আজকের আয়োজনে জানাব নতুন কী কী ফিচার রয়েছে আইওএসের সর্বশেষ এ ভার্সনে-
প্রযুক্তি গবেষক অনেকেই বলছেন, অ্যাপলের অপারেটিং সিস্টেমের এ সংস্করণটির কিছু ফিচার গুগলের অপারেটিং সিস্টেম অ্যান্ড্রয়েড থেকে ধার করা। যে ফিচারগুলো ইতঃপূর্বেই অ্যান্ডয়েডে দেখা গিয়েছে। এবারের ‘আইওএস ১৪’-এর ফিচারগুলো খুব বেশি আকর্ষণীয় না হলেও কিছু কিছু ফিচার আছে যা খুবই প্রয়োজনীয়। আপাতত ‘আইওএস ১৪’-এর ডেভেলপার বিটা চালু করেছে অ্যাপল এবং জুলাই থেকে ছাড়া হবে পাবলিক বিটা। আইফোন ১২ উন্মোচনের পরপরই সব ব্যবহারকারীদের কাছে পৌঁছে যাবে ‘আইওএস ১৪’।
কম্প্যাক্ট কল স্ক্রিন
এবারের আইওএস ১৪-এর অন্যতম আকর্ষণীয় ফিচার হচ্ছে- কম্প্যাক্ট কল স্ক্রিন। যার ফলে কল স্ক্রিন এখন আর পুরো ডিসপ্লে জুড়ে না এসে স্ক্রিনের উপরের অংশে ব্যানার আকারে আসবে। যা আইফোনে গেমিং এবং ভিডিও দেখার সময় সবচেয়ে বেশি কাজে আসবে।
অ্যাপ লাইব্রেরি
অপারেটিং সিস্টেমটির এবারের আপডেটে সম্পূর্র্ণ নতুন এক ফিচারের অভিজ্ঞতা পাবে অ্যাপেল আইফোন ব্যবহারকারীরা। নতুন এ ফিচারটির নাম অ্যাপ লাইব্রেরি। এখানে ক্যাটাগরিভিত্তিতে সাজান যাবে ফোনে থাকা অ্যাপগুলোকে। এছাড়া একটি ফোল্ডারে সাজেস্টেড অ্যাপ এবং সম্প্রতি যুক্ত করা অ্যাপ সহজে এক্সেস করা যাবে, যা মূলত অ্যাপ ড্রয়ার হিসেবে কাজ করবে।
হোম স্ক্রিন উইজেট
অ্যাপল তাদের ব্যবহারকারীদের জন্য নতুন আইওএস ১৪-তে টু’ডে স্ক্রিনের পরিবর্তে হোম স্ক্রিন উইজেট ফিচারটি নিয়ে এসেছে। নতুন এ ফিচারটির মাধ্যমে উইজেট অধিক ডেটা সমৃদ্ধ এবং বিভিন্ন আকারে ব্যবহার করা যাবে।

পিকচার-ইন-পিকচার
ভিডিও দেখার সুবিধার্থে অ্যাপল যোগ করেছে পিকচার-ইন-পিকচার ভিডিও নামের একটি ফিচার। অন্য অ্যাপে ঢুকলে বা হোম স্ক্রিনে গেলেও ভিডিও চলতে থাকবে। চ্যাট করতে করতে ভিডিও দেখতে সমস্যা হলে তা ড্র্যাগ করে সরিয়েও রাখা যাবে। এতে সাউন্ড চলতে থাকবে কিন্তু ভিডিও দেখা যাবে না, যা অনেকটা অ্যান্ড্রয়েডের মতো। তবে অ্যান্ড্রয়েডের চেয়ে কিছুটা উন্নত ফিচার থাকছে আইওএস ১৪-এর পিকচার-ইন-পিকচার মোডে।
ট্রান্সলেট অ্যাপ
নতুন ট্রান্সলেশন অ্যাপে টেক্সট ও অডিও ১১টি ভাষায় অনুবাদ করতে পারবে, যার মধ্যে ইংরেজি, স্প্যানিশ, ফ্রেঞ্চ ও মান্দারিন ভাষা রয়েছে। যখন দু’জন ব্যক্তি আইফোনে ভিন্ন ভাষায় কথা বলবেন তখন রিয়েল টাইমে ট্রান্সলেশন সুবিধা দিতে সক্ষম হবে এ ফিচার।
ম্যাসেজ আপডেট
অ্যাপলের আইমেসেজে গ্রুপ মেসেজিং ব্যবহার বাড়ায় এবার নতুন ফিচার নিয়ে এসেছে। এর মধ্যে রয়েছে গুরুত্বপূর্ণ কথোপকথন পিন করে রাখা, মেনশন, ইনলাইন রিপ্লাই, নতুন ইমোজিসহ কয়েকটি দারুণ ফিচার। ম্যাসেজে কাউকে ‘মেনশন’ করা হলে তিনি তা নোটিফিকেশন পাবেন। ছবি বা ইমোজির মাধ্যমে গ্রুপ ফটো সেট করা, অ্যাপল ইমোজি ব্যবহার করার সুবিধা পাওয়া যাবে। এছাড়াও গত বছরের তুলনায় এখন অ্যাপলের মেসেজেস অ্যাপ ৪০ শতাংশের অধিক মেসেজ সংরক্ষণ করতে পারবে। এছাড়া গ্রুপ মেসেজ ক্যাপাসিটি দ্বিগুণ করা হয়েছে।

হাইড অ্যাপ পেইজ
হাইড অ্যাপ পেইজ ফিচারের সাহায্যে আইওএস ১৪’তে যে কোনো অ্যাপ লুকিয়ে রাখতে পারবেন ইউজাররা। ফিচারটি মূলত তাদের জন্য আনা হয়েছে যারা ফোনে খুব বেশি অ্যাপ ইন্সটল রাখেন।
ডিজিটাল কার কী
গাড়ির চাবির বিকল্প আনতে কাজ করছে প্রযুক্তি জায়ান্ট অ্যাপল। সে খবরই জানান দিল এবারের আইওএস ভার্শনে। নতুন এক ফিচার এনেছে যা ব্যবহারকারীকে আইফোন বা অ্যাপল ওয়াচ ব্যবহার করে গাড়ির চাবি লক-আনলক করা এবং ফোনে স্টার্ট/স্টপ বাটন চেপে গাড়ি চালান যাবে। প্রথমে শুধু ২০২১ বিএমডব্লিউ ৫ সিরিজের গাড়িতেই কাজ করবে কার কি ফিচারটি। এ ডিজিটাল গাড়ির চাবি পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে মেসেজ ব্যবহার করে বিনিময় করাও যাবে। অর্থাৎ পরবর্তী প্রজন্মের প্রযুক্তি ব্যবহার করে পকেট থেকে আইফোন বের না করেই গাড়ি খোলা যাবে।
অ্যাপ ক্লিপস
অ্যাপল নতুন অ্যাপ খোঁজা এবং এতে ঢোকার একটি সহজ উপায় প্রকাশ করেছে। এ ফিচারকে বলা হচ্ছে অ্যাপ ক্লিপস। প্রয়োজনীয় অ্যাপের ক্ষুদ্র অংশ ব্যবহারের সুযোগ থাকবে। এসব অ্যাপের আকার হবে ক্ষুদ্র। এতে অ্যাপল পে-যুক্ত থাকবে। ব্যবহারকারী চাইলে অ্যাপটির পূর্ণ সংস্করণ ডাউনলোড করে ব্যবহার করতে পারবেন। নতুন অ্যাপ্লিকেশন ক্লিপ কোডটি স্ক্যান করে বা কিউআর ব্যবহার করে একসেস করা যেতে পারে।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *